সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ, লি যুগের অবসান

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং দীর্ঘ ২০ বছর পর পদত্যাগ করেছেন, এর মাধ্যমে লি যুগের অবসান হলো। নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ৫১ বছর বয়সী লরেন্স ওং বুধবার (১৫ মে) দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে উপ-প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী লরেন্স ওং-এর হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

লি সিয়েন লুং-এর নেতৃত্বে সিঙ্গাপুরের অর্থনীতি ব্যাপক সমৃদ্ধি লাভ করেছে এবং বৈচিত্র্যময় হয়ে উঠেছে। বিশ্বব্যাপী এটি একটি প্রধান অর্থনৈতিক কেন্দ্র ও জনপ্রিয় ভ্রমণ কেন্দ্র হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। তিনি সিঙ্গাপুরের চতুর্থ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন এবং তাঁর পূর্বসূরিরা সবাই পিপলস অ্যাকশন পার্টির (পিএপি) প্রতিনিধি ছিলেন। লি সিয়েন লুং এর বাবা, লি কুয়ান ইউ, সিঙ্গাপুরের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন এবং তাকে আধুনিক সিঙ্গাপুরের প্রতিষ্ঠাতা বলা হয়।

 

7Searchppc

বিশ্লেষকরা বলছেন, লি পরিবারের ছায়া থেকে বেরিয়ে আসার ফলে সিঙ্গাপুরের রাজনৈতিক নেতৃত্ব নতুনভাবে বিকশিত হবে। যদিও লি সিয়েন লুং ঊর্ধ্বতন মন্ত্রী হিসেবে মন্ত্রিসভায় থাকবেন।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার শেষ সাক্ষাৎকারে লি সিয়েন লুং সিঙ্গাপুরের জনগণকে তাদের সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি উল্লেখ করেন যে, তিনি তার নিজের মতো করে কাজ করার চেষ্টা করেছেন, যা তার বাবা এবং পূর্বসূরি গোহ চোক তং এর থেকে ভিন্ন ছিল।

 

লি ১৯৮৪ সালে রাজনীতিতে যুক্ত হন এবং ২০০৪ সালে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। তার নেতৃত্বে সিঙ্গাপুরের অর্থনীতি দ্রুত সমৃদ্ধি লাভ করে এবং এটি একটি প্রধান অর্থনৈতিক কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। গত দুই দশকে জনপ্রতি জিডিপি দ্বিগুণেরও বেশি বৃদ্ধি পায়।

 

ভূ-রাজনীতিতেও লি সিয়েন লুং সফলতা দেখিয়েছেন। আঞ্চলিক প্রতিযোগিতার মধ্যেও তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সাথে সম্পর্কের ভারসাম্য বজায় রাখতে সক্ষম হন। তিনি সিঙ্গাপুরের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনীতিবিদদের মধ্যে শীর্ষে অবস্থান করতেন এবং নির্বাচনের সময় তার নির্বাচনী এলাকায় ধারাবাহিকভাবে সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছেন।

 

তবে তার প্রশাসনের অভিবাসন নীতি নিয়ে জনগণের মধ্যে অসন্তোষ ছিল। সিঙ্গাপুরের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সাথে ক্রমবর্ধমান সামাজিক বৈষম্য ও আয়ের অসমতা বাড়ায় তিনি ও তার প্রশাসন সমালোচনার শিকার হন। তার নেতৃত্বে ২০১১ ও ২০২০ সালে পিপলস অ্যাকশন পার্টি দেশটির ইতিহাসের সর্বনিম্ন ভোট পায়।

 

লি সিয়েন লুং এখন ক্ষমতা হস্তান্তর করেছেন লরেন্স ওং-এর কাছে। লরেন্স ওং সিঙ্গাপুরের ঐতিহ্যবাহী লি পরিবারের বাইরে থেকে ক্ষমতায় এসেছেন। দায়িত্ব নেওয়ার পর তিনি সম্পূর্ণ নতুন নেতৃত্বের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যা পূর্ববর্তী প্রজন্মের থেকে আলাদা হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.