বড় পতন বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স এর

0

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক/- বড় ধরনের পতন হয়েছে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স শেয়ার দামে । বিনিয়োগকারীরা কোম্পানিটির শেয়ার কিনতে আগ্রহী না থাকায় সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হয়েছে মাত্র ১০ লাখ ৪১ হাজার টাকা। আর প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন হয়েছে ২ লাখ ৮ হাজার টাকা। অপরদিকে শেয়ারের দাম কমেছে ৩৪ দশমিক ৯ শতাংশ। টাকার অঙ্কে প্রতিটি শেয়ারের দাম কমেছে ১ টাকা ৫০ পয়সা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম দাঁড়িয়েছে ২ টাকা ৯০ পয়সায়, যা তার আগের সপ্তাহ শেষে ছিল ৪ টাকা ৪০ পয়সা।

দীর্ঘদিন ধরে লোকসানে নিমজ্জিত আর্থিক খাতের এ কোম্পানিটি ২০১৩ সালের পর থেকে বিনিয়োগকারীদের কোনো ধরনের লভ্যাংশ দিতে পারেনি। চলতি হিসাব বছরেও মোটা অঙ্কের লোকসানে রয়েছে কোম্পানিটি। চলতি বছরের জানুয়রি-মার্চ এ তিন মাসে কোম্পানিটির লোকসান হয়েছে ১৭ কোটি ২৬ লাখ টাকা। এতে প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে লোকসান হয়েছে ১ টাকা ৭১ পয়সা।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, এ কোম্পানিটির মোট শেয়ারের ৩৪ দশমিক ৭৩ শতাংশ রয়েছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের হাতে। বাকি শেয়ারের মধ্যে ১৬ দশমিক ৯৫ শতাংশ আছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে আছে ৪৮ দশমিক ৩২ শতাংশ শেয়ার।

বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্সের পরেই বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ হারানোর তালিকায় ছিল ফার্স্ট ফাইন্যান্স। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমেছে ২৭ দশমিক ২৭ শতাংশ। এর পরেই রয়েছে ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমেছে ২৩ দশমিক ৯১ শতাংশ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.