Ultimate magazine theme for WordPress.

টেকনাফে বন্ধুকযুদ্ধে মাদক কারবারী নিহত

0

টেকনাফ থেকে সংবাদদাতা/-  শনিবার রাতে এক মাদক কারবারীকে আটকের পর রোববার (১৪ জুলাই) ভোর রাতে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াপাড়া বালিকা মাদরাসার পেছনে নাফ নদীর পাড়ে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন সেই মাদক কারবারী। নিহত মাদক কারবারীর নাম মুফিদ আলম (৩৮) । সে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকার নজির আহম্মদের ছেলে। তিনি চিহ্নিত মাদক কারবারি বলে দাবি করেছেন টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।এ সময় ২টি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, ১০ রাউন্ড কার্তুজ ও ৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, ‘শনিবার রাতে এএসআই অহিদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মাদক উদ্ধার অভিযানের সময় হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বাজার এলাকা থেকে মুফিদ আলমকে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক আমার নেতৃত্বে পুলিশের টিম হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বালিকা মাদরাসার পেছনে নাফ নদীর পাশে ইয়াবা উদ্ধারে যায়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষণ গুলিবিনিময়ের পর মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মুফিদকে প্রথমে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.