চার ক্যাটাগরিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি

0

ষ্টাফ রিপোর্টার/- নতুন করে চার ক্যাটাগরিতে উপযুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। পাশাপাশি মন্ত্রী, এমপি, রাজনীতিবিদ ও প্রভাবশালীদের অধা-সরকারি পত্র বা ডিও থেকে আরও তিন ধরনের তালিকা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এসব শিক্ষামন্ত্রীর কাছে তুলে ধরা হবে।

যেসব উপজেলায় কোনো উপযুক্ত প্রতিষ্ঠান পাওয়া যায়নি সেসব উপজেলায় সর্বোচ্চ নম্বরপাপ্ত কিন্তু অনুপযুক্ত প্রতিষ্ঠানের তালিকা, অনগ্রসর ও দুর্গম এলাকায় অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের তালিকা রয়েছে।
জানা গেছে, এমপিওভুক্তির জন্য মোট ১০০ নম্বর নির্ধারণ করা হয়। তার মধ্যে প্রতিষ্ঠানের একাডেমিক স্বীকৃতি, শিক্ষার্থীর সংখ্যা, পরীক্ষার্থীর সংখ্যা এবং পরীক্ষায় পাশের হারের ওপর মানদণ্ড করে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো যাচাই-বাছাই করে তালিকা তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি মানদণ্ডের জন্য ২৫ নম্বর করে নির্ধারণ করা হয়। এর ভিত্তিতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অধীনে ১১১টি থানায়, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের অধীনে ৭৭টি থানায় একটি প্রতিষ্ঠানও যোগ্য হিসেবে পাওয়া যায়নি।

কর্মকর্তা জানান, এমন পরিস্থিতিতে এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী ২২, ৩৫ ও ৩৬ ধারার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠান বাছাই করা হবে। এক্ষেত্রে পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) দারিদ্র্য ম্যাপ অনুযায়ী থানা নির্বাচন করে প্রতিষ্ঠান বাছাই করা হতে পারে। এসব বিষয় সিদ্ধান্ত নিতে কাল সোমবার বিকেল ৫টায় শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কর্মকর্তাদের সভা ডাকা হয়েছে। সভায় এমপিওভুক্তির জন্য তৈরি নতুন তালিকা উপস্থাপন করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত আগস্টে এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন চাওয়া হয়। এতে সারা দেশ থেকে ৯ হাজার ৬১৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন আসে। এসবের মধ্যে সব শর্তপূরণ করে ২ হাজার ৭৬২টি প্রতিষ্ঠান যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.