Ultimate magazine theme for WordPress.

রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে রয়েছে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস

0

লাষ্টনিউজ২৪/- আগামী ৩/৪ দিন পর আবার তাপমাত্রা কিছুটা কমে গিয়ে বিদায় নেবে শীত। একই সঙ্গে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।রাজধানী ঢাকায় এবার শীতের আমেজ তেমন টের পাওয়া না গেলেও টানা প্রায় একমাস শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে দেশের কোথাও না কোথাও। শীতও অনেকটাই কমে গেছে এখন ।

আজ, শনিবার শীত ঋতুর শেষ মাস মাঘের ১৩ তারিখ। কাগজে কলমে আর ১৭ দিন পর বিদায় নেবে শীত। গত দু’দিন ধরে ঢাকায় শীত একেবারেই কমে গেছে। দেশের অন্যান্য স্থানের তাপমাত্রাও বেড়ে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে উঠে গেছে।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা শ্রীমঙ্গলে ১০ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রির মধ্যে হলে মাঝারি ও তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রির চেয়ে বেশি থেকে ১০ ডিগ্রির মধ্যে হলে তাকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বলে। তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে হলে তাকে বলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ।

এবার মৌসুমের প্রথম শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয় গত ২৬ ডিসেম্বর, শৈত্যপ্রবাহ দূর হয় ২৩ জানুয়ারি। এরমধ্যে মৃদু ও মাঝারি থেকে তীব্র আকারও ধারণ করে শৈত্যপ্রবাহ।

আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন লাষ্টনিউজ২৪কে বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা ক্রমেই কমেছে। গত ২৬ ডিসেম্বর থেকে গত ২৩ জানুয়ারি তারিখ পর্যন্ত বড় স্কেলের শীত ছিল। এ সময়ে দেশের কোথাও না কোথাও শৈত্যপ্রবাহ ছিল। অনেকটা সময় জুড়েই শীত ছিল। তবে এ সময়ে প্রায় সারাদেশেই দিনের তাপমাত্রাটা ভালো ছিল, কষ্টদায়ক হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘বড় ধরনের শীত শেষ হয়ে গেলেও এই মাসের শেষের দিকে প্রায় সারাদেশেই তাপমাত্রা আবার কমবে, তখন একটু শীত পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৩০ তারিখ থেকে দুই থেকে চারদিন এটা থাকতে পারে। তখন কিছু কিছু জায়গায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।’

‘এটাই হবে বিদায়ী শীত’ বলেন আবহাওয়াবিদ আরিফ।

শীতকালে ‘ওয়েস্টার্ন ডিস্টার্বেন্সের’ জন্য কোথাও কোথাও বৃষ্টি হয় জানিয়ে আরিফ হোসেন বলেন, ‘এজন্য রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা আছে।’

শনিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবাহওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আংশিক মেঘলা আকাশসহ দেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। তবে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দু’এক জায়গায় হালকা বৃষ্টি বা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এ সময়ে শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। রংপুর ও রাজশাহী বিভাগে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং দেশের অন্যত্র তা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে বলেও পূর্বাভাসে উল্লেখ করা হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.