Ultimate magazine theme for WordPress.

সংঘর্ষে ২ জন নিহত, ৫১ জনকে আসামি করে মামলা

0

পাবনা থেকে প্রতিনিধি /- পাবনার সদর উপজেলার ভাড়ারা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুইজন নিহতের ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। বুধবার রাত ৮টার দিকে মামলাটি দায়ের করেছেন সংঘর্ষে নিহত মহসীন খান লস্করের ছেলে সুলতান মাহমুদ খান।

মামলায় সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ খানকে প্রধান আসামিসহ ৫১ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

পাবনার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবাইদুল হক বলেন, ৫১ জনকে আসামি করে মামলার এজাহার পেয়েছেন। তদন্ত করে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

মামলার বাদী সুলতান মাহমুদ খানের অভিযোগ, হামলাকারীরা তার বাবা ও প্রতিবেশীকে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে এবং গুলি করে হত্যা করার পর তাদের বাড়িতে লুটপাট চালায়। এ সময় হামলাকারীরা নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রায় ৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।

গত সোমবার সন্ধ্যায় পাবনার সদর উপজেলার ভাড়ারা গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ খান ও জাসদ থেকে সদ্য আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়া সুলতান মাহমুদ খানের সমর্থিত দুই গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে মহসীন খান লস্কর (৬৮) ও প্রতিবেশী আব্দুল মালেক শেখ (৪০) গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.