Ultimate magazine theme for WordPress.

‘বিএনপি নির্বাচনে পরাজয় বুঝতে পেরেই প্রশাসনকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে’

0

সচিবালয় প্রতিবদক /- সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় বুঝতে পেরেই এখন দেশের পুলিশ প্রশাসন ও মাঠ প্রশাসনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে উঠেপড়ে লেগেছে।

সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচা হাইস্কুল প্রাঙ্গনে ২০ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি জানে তারা দুর্নীতিতে নিমজ্জিত একটি দল। তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক জিয়া দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত। তারা ক্ষমতায় এলে তা যে দেশের জন্য মঙ্গলজনক কিছু হবে না, তা দেশের মানুষ বুঝে গেছে। একারণে বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে যাবার জন্য নানা অজুহাত খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে। কিন্তু এতে তাদের কোনই ফায়দা হবে না। শেখ হাসিনা অত্যন্ত উদার মন নিয়ে তাদের প্রায় সকল দাবি মেনে নিয়েছেন। এখন তারা পালালেও আর কোন ফায়দা হবে না।

বিএনপি’র নির্বাচনে আসার পেছনে ভিন্ন উদ্দ্যেশ্য আছে উল্লেখ করে মেনন বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনকে বানচাল করতেই এই নির্বাচনে এসেছে। তারা পলটনে সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটিয়েছে। এখন পুলিশসহ দেশের প্রশাসনকে নিয়ে উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলছে। মুলত, বিএনপি নিজেরা প্রশাসনকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় এসেছিল বলেই প্রশাসনকে নিয়ে তাদের এত ভয়।’

ঢাকা ৮ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য হিসেবে নিজের ভুমিকা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘রাজধানীর পল্টন, মতিঝিল, শাহজাহানপুর এলাকাসহ গোটা ঢাকা ৮ আসনের জনগণ গত ১০ বছরে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশে থেকেছে। রাস্তাঘাট, স্কুল কলেজের বহুতল ভবন নির্মাণ, নতুন বিষয়ে অনার্স খোলা এবং মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধিতে এই এলাকার সকল স্কুল কলেজ, মসজিদ মাদ্রাসায় অনুষ্ঠান করেছি। এলাকাবাসী, মসজিদের ইমাম, মাদ্রাসা মসজিদ কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে আলোচনা করে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। এলাকার বস্তিবাসীদের জন্য সহায়তার ব্যবস্থার পাশাপাশি বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতার মাধ্যমে এই এলাকার দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। সুতরাং এই এলাকার মানুষ আমার কাজের কথা মনে রেখে এবার নির্বাচনেও আমাকে বিজয়ী করবেন বলে আমি বিশ্বাস করি।’

২০ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মনোয়ার হোসেন মনুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য তৌহিদুর রহমান, ২০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ রতন, শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম আতিকুর রহমান, সহসভাপতি আনিসুর রহমান, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সদস্য আবুল কালাম আজাদ ও অন্য নেতৃবৃন্দ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.