LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

সিইসি যে কথা দিয়েছিলেন তা এখন পর্যন্ত বাস্তবায়ন হয়নি

0

ষ্টাফ রিপোর্টার/- সোমবার (২ নভেম্বর) উত্তরা ৮ নম্বর সেক্টরের মালেকাবানু আদর্শ বিদ্যানিকেতন, আইচি হাসপাতাল, মহিলা ও শিশু হাসপাতাল, পল্লীবাজার এলাকায় গণসংযোগ শেষে পলওয়েল শপিংমলের সামনে সংক্ষিপ্ত পথসভায় ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন মন্তব্য করেন গণসংযোগ করতে না দিলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) অফিসে বসা ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না।

তিনি বলেন, আমরা সম্প্রতি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে মিটিং করেছি। তিনি আমাদের কথা দিয়েছিলেন বৈঠকের দিন ২৭ অক্টোবরের পর থেকে আপনারা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে যেখানে যেভাবে কর্মসূচি দেবেন তা করতে পারবেন কোনো সমস্যা হবে না। কিন্তু আমরা শুধু দেখেছি, সিইসি আমাদের যে কথা দিয়েছিলেন তা এখন পর্যন্ত বাস্তবায়ন হয়নি।

জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আমরা কোনো ঝামেলায় জড়াতে চাই না। আমাদের দেশনায়ক তারেক রহমানের সরাসরি নির্দেশ আওয়ামী লীগ বাধা দিলেও শান্ত থেকেই গণসংযোগ কর্মসূচি করতে হবে। আপনারা দেখছেন, আমরা যেখানে কর্মসূচি দিচ্ছি, সেখানে আওয়ামী লীগ পাল্টা কর্মসূচিসহ নানাভাবে বাধা দিচ্ছে। তা সত্ত্বেও যেখানে যাচ্ছি ধানের শীষের পক্ষে জনসমুদ্র হয়ে যাচ্ছে। শক্তি-সামর্থ্য ও জনসমর্থন থাকার পরও আমরা শান্তিতে বিশ্বাস করি এবং সে পথেই আছি।

ধানের শীষের এ প্রার্থী বলেন, আমরা প্রধান নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশে বলতে চাই, আপনারা যদি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি না করেন, এলাকায় যদি গণসংযোগ করতে না পারি, জনগণের শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য কোনো রকম বিশৃঙ্খলা হবে না, আওয়ামী লীগ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে- তা আমরা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি। কিন্তু এলাকায় ভোট চাইতে পারব না, এলাকায় গণসংযোগ করতে পারব না তাহলে কিন্তু আমাদের ওই সিইসির অফিসে বসে থাকা ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না।

গণসংযোগে জাহাঙ্গীরের সঙ্গে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা রাজীব আহসান, আকরামুল হাসান, যুবদলের মোর্তাজুল করিম বাদরু, সোহেল আহমেদ, মহানগর বিএনপি নেতা আবদুল আলীম নকি, স্বেচ্ছাসেবক দলের ফখরুল ইসরাম রবিন, বাংলা কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি আইয়ুব হোসেনসহ বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

জাহাঙ্গীর আরও বলেন, আপনারা আমাদের কারও বাবা, কারও ভাই, কারও সন্তান। আপনাদের কাছে অনুরোধ, একটি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করার জন্য যা যা করা দরকার সেটা চেষ্টা করেন। পুলিশ ভাইদের বলব, সব পুলিশ সদস্য খারাপ না। সেখানেও বিবেকবান মানুষ আছেন, বিবেকবান পুলিশ আছেন। যারা বিবেকবান, তারা যদি তাদের বিবেক কাজে লাগিয়ে জনগণের অধিকার রক্ষার্থে, জনগণের ভোটাধিকার রক্ষার্থে, গণতন্ত্র রক্ষার্থে কাজ করেন, তাদের সঙ্গে জনগণ আছে থাকবে। আপনারা অবশ্যই সফল হবেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy