LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

সংসদে প্রশ্ন বদল করার অভিযোগ বিএনপির হারুনের

0

ষ্টাফ রিপোর্টার/- ‘আমরা যে প্রশ্নপত্র জমা দেই সেটি স্পিকার কর্তৃক গ্রহণের পর হুবহু মৌখিক প্রশ্ন তালিকায় আসতে হবে। কিন্তু আমি বিস্মিত হয়েছি আমার প্রশ্নটি ৬৮ নম্বর, সেইভাবে আসেনি। মাননীয় মন্ত্রী যে উত্তর দিয়েছেন এর ধারে কাছেও যাননি। আজও আমার মৌখিক একটি প্রশ্নেরও আংশিক উত্তর এসেছে পুরোটা আসেনি।’ সংসদে প্রশ্ন বদল করার অভিযোগ তুলে বিএনপিদলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ একথা বলেন।

বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মলনে তিনি এসব কথা বলেন।

হারুন বলেন, ‘এ ব্যাপারে স্পিকার ও সংসদ নেতার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি। মাননীয় মন্ত্রীরা শপথ নিয়েছেন তারা সঠিক তথ্য জাতিকে জানাবেন সংসদের মাধ্যমে। এটা সবচেয়ে বড় উদ্বেগের আমার প্রশ্ন পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে।’

গত ৬ সেপ্টেম্বর সংসদের অধিবেশনে শোকপ্রস্তাবে কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খানের নাম যুক্ত করার দাবি জানানোর পরও তা অন্তর্ভুক্ত না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন হারুন। ১৮ মাসেও তদন্তকারী কর্মকর্তার দায়েরকৃত মামলার প্রতিবেদন না দেয়ায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিও জানান এই এমপি।

সংবাদ সম্মেলনে সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) সিরাজ বলেন, ‘১২ বছর দুর্নীতি চলছে, লুট চলছে, ডাকাতি চলছে, ব্যাংক খালি করে ফেলেছে, অর্থনীতি পঙ্গু হয়ে গেছে। চারদিকে শুধু লীগ আর লীগ। সেখানে এখন পর্যন্ত আমি বা আমার বন্ধুরা যে প্রশ্ন উত্থাপন করি সংসদে। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সংসদ থেকে বলেন সেই ১৪ বছর আগের কাহিনী শুরু করেন। ১৪ বছর আগে বিএনপি কী করেছিল? ১৪ বছরের সরকার কী করল সেটা তিনি দেখেন না।’

তিনি বলেন, ‘এখন দেশ যেভাবে চলছে এভাবে দেশ চলতে পারে না। গরিবের পয়সা, কৃষকের পয়সা ট্যাক্সের পয়সা লুটপাট করে চলে যাচ্ছে। আমি আগামীকাল যদি দেখি পার্লামেন্ট ডিজলবড হয়ে গেছে তাহলে আমি হব হ্যাপিয়েস্ট ম্যান। কেন? আমি চাই, মানুষ তার ভোটের অধিকার ফিরে পাক। এরা (ক্ষমতাসীনরা) মানুষের প্রতিনিধি নয়, এরা হাওয়ার প্রতিনিধি।

সংসদে নিজের জমা দেয়া সাতটা প্রশ্ন মূল প্রশ্নতালিকায় বিকৃতভাবে উপস্থাপিত হওয়ার অভিযোগ তুলে ধরে সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা বলেন, ‘সংবিধান ও কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী সংসদ সদস্য যে প্রশ্ন জমা দেবেন, সেই প্রশ্ন স্পিকার বা ডেপুটি স্পিকার চাইলে গ্রহণ করতে পারেন বা বাদও দিতে পারেন। সেই এখতিয়ার তাদের আছে। কিন্তু প্রশ্ন বিকৃত করার কোনো ক্ষমতা সংসদের নেই।’

‘আমরা এমন একটা দেশে বাস করছি যেখানে ভোট জালিয়াতি হয়, ব্যাংক জালিয়াতি হয়, টাকা পাচারের জালিয়াতি হয়, শেয়ারবাজারের জালিয়াতি হয়, যেখানে শিক্ষাক্ষেত্রে জালিয়াতি হয়, করোনা নিয়ে, মাস্ক নিয়ে জালিয়াতি হয়, স্বাস্থ্যখাতে জালিয়াতি হয়; এমন কোনো খাত নেই যেখানে জালিয়াতি হয় না। এই জালিয়াতি এখন সংসদেও ঢুকে গেছে।’

সরকারি দলের এমপি আট-দশটি প্রশ্ন জমা দিলে তাদের সব প্রশ্নই গ্রহণ করা হলেও তার জমা দেয়া ৪০/৫০টা প্রশ্ন থেকে মাত্র ছয় থেকে ১০টি প্রশ্ন আসে বলে অভিযোগও করেন তিনি।

এমপি মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমরা সংসদে আমাদের অধিকার পাচ্ছি না। আমরা সংসদে কথা বলতে চাই- সেই সুযোগ আমাদের দেয়া হচ্ছে না। আমাদের নোটিশ বাইপাস করা হয়।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমিনুল ইসলাম এমপি ও জাহিদুর রহমান এমপি উপস্থিত ছিলেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy