LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

শুভ জন্মদিন ‘মিষ্টি মেয়ে’

0

বিনোদন ডেস্কঃ পরিচালক সুভাষ দত্তের ‘সুতরাং’ সিনেমায় অভিনয় করে চিত্রাঙ্গনে অভিষেক হয়েছিল তার। বাবা শ্রীকৃষ্ণদাস পাল আর মা লাবণ্য প্রভা পালের আদরের মেয়ে ছিলেন তিনি। আসল নাম মিনা পাল। চলচ্চিত্রের কল্যাণে তিনি হয়ে উঠেছেন ‘মিষ্টি মেয়ে’।

ষাট ও সত্তর দশকে বাংলা সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা ছিলেন তিনি। ১৯৫০ সালের ১৯ জুলাই চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মিনা পাল। পরে অবশ্য মিনা পাল থেকে সারাহ বেগম কবরী হয়েছিলেন। ১৯৬৩ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে নৃত্যশিল্পী হিসেবে মঞ্চে উঠেছিলেন। তারপর টেলিভিশন ও সবশেষে সিনেমায়।

ক্যামেরার পেছনেও অনবদ্য ছিলেন কবরী। ২০০৫ সালে মুক্তি পেয়েছে কবরী পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘আয়না’। ‘এই তুমি সেই তুমি’ শিরোনামের দ্বিতীয় সিনেমায় নির্মাণ করছিলেন তিনি। সে সিনেমার কাজ শেষ হওয়ার আগেই মারা যান কবরী। বাকি অংশের কাজ শেষ করবেন তার ছেলে।
অভিনয় ক্যারিয়ারে অনেকগুলো সিনেমায় অভিনয় করেছেন কবরী। ‘সাত ভাই চম্পা’, ‘হীরামন’, ‘ময়নামতি’, ‘চোরাবালি’, ‘পারুলের সংসার’, ‘বিনিময়’, ‘আবির্ভাব’, ‘নীল আকাশে নীচে’, ‘দীপ নেভে নাই’, ‘স্মৃতিটুকু থাক’ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। জহির রায়হানের উর্দু সিনেমা ‘বাহানা’ এবং ঋত্বিক ঘটকে ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ সিনেমায় অভিনয় করে অন্য উচ্চতায় চলে গিয়েছিলেন কবরী।
অভিনেত্রী থেকে জননেত্রী হয়ে উঠেছিলেন কবরী। ২০০৮ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। রাজনীতির পাশাপাশি যুক্ত হয়েছেন অসংখ্য নারী অধিকার ও সমাজসেবামূলক সংগঠনের সঙ্গে। অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭-তে প্রকাশ হয়েছে তার আত্মজীবনীমূলক বই ‘স্মৃতিটুকু থাক’।
চিত্ত চৌধুরীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ১৯৭৮ সালে সফিউদ্দীন সরোয়ারকে বিয়ে করেছিলেন কবরী। ২০০৮ সালে বিচ্ছেদ হয় তাদের। জনপ্রিয় এ চিত্রনায়িকা পাঁচ সন্তানের মা। অভিনয় ক্যারিয়ারে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, বাচসাস পুরস্কারসহ অসংখ্য সম্মাননা পেয়েছিলেন কবরী।
ভক্ত আর সহকর্মীদের কাঁদিয়ে গত ১৫ এপ্রিল না ফেরার দেশে চলে গেছেন বাংলা সিনেমার এ মিষ্টি মেয়ে। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছিল চিত্রাঙ্গনে। করোনা আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন কবরী। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ৮ এপ্রিল শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয় তাকে। ১৫ এপ্রিল বিকেলে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছিল কবরীকে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy