LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত সাড়ে ৬ লাখ নারী কর্মী

0

ষ্টাফ রিপোর্টার/- বাংলাদেশের প্রায় সাড়ে ছয় লাখ নারী কর্মী বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত আছেন। তাই ‘দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা’র কারণে যেন ভুলভাবে সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি উত্থাপন না হয়, সেদিকে দেশের সকল নাগরিককে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বুধবার (২১ অক্টোবর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১৬তম বৈঠকে এই পরামর্শ দেয়া হয়।

সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে অংশ নেন কমিটির সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, নূরুল ইসলাম নাহিদ, গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স, মো. আব্দুল মজিদ খান এবং মো. হাবিবে মিল্লাত।

বৈঠকে জানানো হয়, চলমান মহামারির কারণে যেসব অভিবাসী কর্মী তাদের স্ব স্ব কর্মস্থলে ফেরত যেতে পারেনি, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় স্বাগতিক দেশসমূহের সাথে ফলপ্রসূ কূটনৈতিক যোগাযোগের মাধ্যমে মেয়াদোত্তীর্ণ ভিসা, ইকামা (কাজের অনুমতিপত্র) ইত্যাদির মেয়াদ বাড়িয়ে বিশেষ ফ্লাইটযোগে তাদের প্রত্যাবর্তনের ব্যবস্থা করে। ইতালি, যুক্তরাজ্য, স্পেন, পর্তুগাল, ফ্রান্স, গ্রিস, সৌদি আরব ও ওমানে বিশেষ ফ্লাইটযোগে মোট দুই হাজার ৫৬০ জন আটকে পড়া প্রবাসীর প্রত্যাবাসন করা হয়েছে।

এতে আরও জানানো হয়, করোনার কারণে কর্মহীন প্রবাসীদের নতুন কর্মসংস্থান তৈরি, আটকে পড়া বাংলাদেশি নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনা, দেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের স্ব স্ব কর্মস্থলে পাঠানো এবং বিশেষ বিমান চলাচলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে।

এছাড়া বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোতে একাধিক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করলেও ‘এক দেশ এক মিশন’ সংস্কৃতির ভিত্তিতে সম্মিলিত প্রয়াস অব্যাহত থাকায় কোভিড-১৯ মহামারির কারণে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জসমূহ সাফল্যের সাথে মোকাবিলা করা সম্ভব হচ্ছে।

করোনায় সৃষ্ট পরিবেশের সাথে সমন্বয় করে অর্থনীতির চাকা কীভাবে সচল রাখা যায়, সে বিষয়ে সুপারিশ করা হয় বৈঠকে। এজন্য বিশ্বের সাথে যোগাযোগ রেখে অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারের জন্য বাংলাদেশে তৈরি পণ্য রফতানির ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এ বিষয়ে বৈঠকে বিদেশে বাংলাদেশের মিশনগুলোকে সেদেশের চাহিদা নিরুপণ করে ঢাকাকে জানানোর এবং সে আলোকে রূপরেখা প্রণয়ন করে একটি পরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে তা বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

বৈঠকে কানাডা ও ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশ মিশনে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতরা সেদেশে তাদের করণীয় বিষয়ে রূপরেখা উপস্থাপন করেন।

এসময় কমিটির পক্ষ থেকে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত এয়ার ভাইস মার্শাল মোস্তাফিজুর রহমানকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পক্ষে ইন্দোনেশিয়ার সমর্থন আদায়ে কাজ করার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy