LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

ফাইনাল মানেই ফ্লপ মেসি!

0

খেলাধুলাডেস্কঃ লিওনেল মেসি। বর্তমানে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের একজন। শুধু বর্তমান না, যদি সর্বকালের সেরাদের কোনো তালিকা করা হয় সেখানেও তিনি থাকবেন।

মেসি খেলবেন কোপা আমেরিকার ফাইনাল। সবার চাওয়া জাতীয় দলের অন্তত একটা ট্রফি উঠুক তার হাতে। এবারের আসরে মেসি যেভাবে খেলছেন তাতে আর্জেন্টিনাই চ্যাম্পিয়ন হবে এমনটাই বলছেন সবাই। শেষ পর্যন্ত মেসি নাকি নেইমার কার হাতে উঠবে শিরোপা তা জানা যাবে কয়েক ঘণ্টা পরেই। আসুন ফাইনালের আগে মেসিকে নিয়ে কিছু তথ্য জেনে নিই।
ক্লাব ফুটবলে মেসির অজস্র অর্জন। বার্সেলোনার হয়ে ইউরোপের মর্যাদাপূর্ণ ট্রফির সবগুলোই জিতেছেন মেসি। এল ক্লাসিকো, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল, বড় বড় ম্যাচে গোল করেছেন মেসি। তার ঝুলিতে আছে অজস্র রেকর্ডও। সবই কিন্তু ক্লাবের হয়ে।
জাতীয় দলের জার্সিতে মেসির পারফরম্যান্স কেমন? কোপা আমেরিকার ফাইনালের আগ পর্যন্ত মেসি খেলেছেন ১৫০ ম্যাচ। যেখানে তার গোলসংখ্যা ৭৬, আর অ্যাসিস্ট আছে ৫৩টি। তার মানে আমরা বলতে প্রতি দুই ম্যাচে মেসির একটি করে গোল, আর প্রতি তিন ম্যাচে একটি করে অ্যাসিস্ট। এই সংখ্যাগুলোই মেসির গ্রেটনেস বলে দেয়।
মেসির জাতীয় দলে অভিষেক হয় ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট। তার মানে প্রায় ১৬ বছর ধরে মেসি খেলছেন জাতীয় দলে। দীর্ঘ এই সময়ে আর্জেন্টিনার হয়ে খেললেও কোনো শিরোপা নেই। এমন তো না যে আর্জেন্টিনা এই সময়ে কোনো ফাইনাল খেলেনি। আর্জেন্টিনা ফাইনাল খেলেছে এবং সেই ফাইনালগুলোতে মেসিও খেলেছেন।
অভিষেকের দুই বছর পরই কিন্তু ক্যারিয়ারের প্রথম ফাইনাল খেলার সুযোগ আসে মেসির। ২০০৭ সালের কোপা আমেরিকায়।
সেই আসরে আর্জেন্টিনার হয়ে প্রতিটি ম্যাচ খেলেন মেসি। ৬ ম্যাচে দুটি গোল মেসির। সেমিফাইনালে মেক্সিকোকে ৩-০ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা। যেখানে একটি গোল ছিলো মেসির। কিন্তু ফাইনালে পুরো ৯০ মিনিটে খেলেও কোনো গোল পাননি তিন। ফাইনালে ব্রাজিলের কাছে ৩-০ গোলে হেরে যায় আর্জেন্টিনা।
এরপর ২০১০ সালের বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নেয় আর্জেন্টিনা। এরপরের বছর নিজেদের মাটিতে কোপা আমেরিকা খেলেছিলো আর্জেন্টিনা। সেখানেও উরুগুয়ের কাছে হেরে কোয়ার্টারেই শেষ হয় আর্জেন্টিনার টুর্নামেন্ট।
এরপর আসে ২০১৪ বিশ্বকাপ। সেই আসরে মেসি ৭ ম্যাচ খেলে ৪ গোল ও একটি অ্যাসিস্ট করেন। কোয়ার্টারর ফাইনাল থেকে ফাইনাল পর্যন্ত ৩ ম্যাচে ৩৩০ মিনিট খেলে কোনো গোল বা অ্যাসিস্ট করতে পারেননি। এর মধ্যে সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে।
পরের বছরেই মেসির আবার ফাইনাল খেলার সুযোগ আসে। কোপা আমেরিকায় সেবার ৬ ম্যাচে মেসির ১ গোল ও ৩ অ্যাসিস্ট ছিলো। এই আসরের ফাইনালেও মেসি ১২০ মিনিট খেলেন। কোন গোল করতে পারেননি। একটা গোল অবশ্য পেয়েছিলেন কিন্তু সেটা ছিলো পেনাল্টি শ্যুট আউটে, যেটা আসলে গোল হিসেবে গন্য হয় না।
তারপরের বছর আবারও কোপা আমেরিকা। এবারো ফাইনালে আর্জেন্টিনা। দুর্দান্ত খেলেন লিওনেল মেসি। সেমিফাইনাল পর্যন্ত করেন ৫ গোল ও চার অ্যাসিস্ট। কিন্তু ফাইনালে আবারো ব্যর্থ হন। ১২০ মিনিট খেলে কোন গোল করতে পারেনি মেসি কিংবা আর্জেন্টিনা। এবার তো পেনাল্টি শ্যুট আউটেও গোল করতে ব্যর্থ হন। এবং টানা তিন ফাইনাল হারের কষ্ট থেকে মেসি জাতীয় দল থেকে অবসরের ঘোষণা দেন।
অবশ্য এর কয়েকমাস পরেই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে ফিরে আসেন মেসি। এবং এখন পর্যন্ত খেলে যাচ্ছেন।
২০১৬ কোপার পর দুটি বড় আসরে ফাইনালে খেলতে পারেনি আর্জেন্টিনা। ২০১৮ বিশ্বকাপ ও ২০১৯ এর কোপা আমেরিকা। বিশ্বকাপ থেকে আর্জেন্টিনা বিদায় নেয় রাউন্ড অব সিক্সটিন থেকে, আর ২০১৯ কোপা আমেরিকা ব্রাজিলের কাছে হেরে সেমিফাইনাল থেকে। এবং সেই সেমিফাইনাল ম্যাচেও গোল করতে ব্যর্থ হয় লিওনেল মেসি।
মেসির এই চার ফাইনালের পারফরম্যান্স:
আসর                              সাল          মিনিট          গোল         অ্যাসিস্ট
কোপা আমেরিকা            ২০০৭        ৯০                ০                  ০
ফিফা বিশ্বকাপ                ২০১৪         ১২০              ০                  ০
কোপা আমেরিকা            ২০১৫         ১২০             ০                  ০
কোপা আমেরিকা            ২০১৬         ১২০             ০                  ০
চার ফাইনালে মেসি ৪৫০ মিনিট খেলেছেন নেই কোনো গোল কিংবা অ্যাসিস্ট। এখান থেকে আমরা বলতেই পারি জাতীয় দলের হয়ে বড় ম্যাচে ফ্লপ মেসি।
তবে আগের চার ফাইনালে গোল পাননি বলেই যে এবারো পাবেন না, বিষয়টা তো এমন না। মেসি এবারের আসরে দারুণ ছন্দে আছেন। শুধু আর্জেন্টিনা বা মেসি ভক্ত না, সবার হয়তো এটাই চাইবেন মেসির মতো একজন চ্যাম্পিয়ন ফুটবলার ফাইনালে গোল করুক এবং শিরোপাও উঠুক তার হাতে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy