LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া উচিত

0

ষ্টাফ রিপোর্টার/- যারা স্কুল-কলেজে যেতে চায় তার জন্য সেভাবে শিক্ষাব্যবস্থা চালু করতে হবে। আর যারা প্রচলিত পদ্ধতিতে পরীক্ষায় অংশ নিতে চায়, তাদের জন্য পরীক্ষার ব্যবস্থাও করতে হবে। কিন্তু যারা এমন পরিস্থিতিতে স্কুল-কলেজে যেতে চায় না, তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া যাবে না। আবার যারা পরীক্ষায় অংশ নিতে অনিচ্ছুক তাদের জন্য অটো পাসের ব্যবস্থা থাকতে হবে।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের। তিনি বলেন, যখন হাট-বাজার, অফিস-আদালত ও গণপরিবহন খুলে দেয়া হয়েছে, তখন শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রাখার কোনো যুক্তি নেই। এভাবে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকলে শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হতে পারে।

রোববার রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কার্যালয় চত্বরে জাতীয় যুব সংহতি আয়োজিত জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষে র্যালির আগে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন,১৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী মানুষের কর্মক্ষমতার ওপর ভিত্তি করেই একটি দেশের স্বাবলম্বিতা ও স্বনির্ভরতা নিশ্চিত হয়। আমাদের জনসংখ্যার বেশিরভাগ মানুষই ১৫ থেকে ৬০ বছর বয়েসের মধ্যে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, আমাদের এই কর্মক্ষম জনশক্তিকে আমরা কাজে লাগাতে পারিনি।

জিএম কাদের বলেন, দেশে ৫ কোটির ওপরে বেকার। তাই বেকারত্ব দূর করতে সরকারকে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। প্রত্যেকের জন্য কাজের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। সরকারিভাবে বেকারত্ব কমাতে কৃষিভিত্তিক কিছু কর্মকাণ্ড গ্রহণ করা হয়, এতে কয়েক লাখ মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়। কিন্তু কোটি কোটি বেকারের জন্য কাজের নিশ্চয়তা নেই।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাতীয় যুব সংহতি, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি আলমগীর সিকদার লোটনের সভাপতিত্বে ও পার্টির যুগ্ম-মহাসচিব ও জাতীয় যুব সংহতি, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আহসান শাহজাদা’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, নাজমা আক্তার, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা জহিরুল আলম রুবেল, যুগ্ম মহাসচিব আমির উদ্দিন আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নির্মল দাস প্রমুখ।

জাতীয় পার্টি মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, দেশের যুবসমাজই আমাদের প্রাণশক্তি। একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে যুবসমাজ যেভাবে স্বাধীনতার লাল সূর্য ছিনিয়ে এনেছে, ঠিক তেমনিভাবেই বর্তমান পরিস্থিতিতে যুব সমাজকে দায়িত্ব নিতে হবে। সামাজিক ও মূল্যবোধের অবক্ষয় থেকে দেশকে বাঁচিয়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে যুব সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে। পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্বপ্নের নতুন বাংলাদেশ গড়তে যুবসমাজকে দায়িত্ব নিতে হবে। চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, দলবাজ ও সন্ত্রাসমুক্ত দেশ গঠনে জাতীয় যুব সংহতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy