LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

‘ডেঙ্গু প্রতিরোধে আমরা ভালো অবস্থায় আছি’

0

ষ্টাফ রিপোর্টার/- ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধে আমরা ভালো অবস্থায় আছি। কিন্তু কী কী কারণে আমরা এই জায়গায় আসতে পেরেছি সেটা অবজারভেশনে রাখছি। আগামী দিনগুলোতে কোনো চ্যালেঞ্জ এলে কীভাবে আমরা সেটা ফেস করব? তবে স্পেসিফিকলি মশা মারার ওষুধের ঘাটতির কথা কেউ বলেনি।

’ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকার ভালো অবস্থায় আছে বলে দাবি করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

রোববার (১ নভেম্বর) ঢাকা মহানগরসহ সারাদেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সিটি করপোরেশনগুলো ও অন্যান্য মন্ত্রণালয় এবং সংস্থার কার্যক্রম পর্যালোচনায় অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সাংবাদিকদের কাছে এ দাবি করেন তিনি। সভায় সভাপতিত্বও করেন মো. তাজুল ইসলাম।

মন্ত্রী বলেন, ‘রোগীর সংখ্যা বেড়েছে, সেটা হেলথ সেক্রেটারি ছিলেন। হেলথের ডাইরেক্টরও ছিলেন; তাদের কাছে যে প্রতিবেদন আছে সে প্রতিবেদন অনুযায়ী তারা বলেনি যে ডেঙ্গু রোগী বাড়ছে।’

ডেঙ্গুতে এ পর্যন্ত চারজন মারা গেছেন। এরমধ্যে একজন শুধুমাত্র নিশ্চিত হওয়া গেছে, কিন্তু বাকি তিনজনের সম্বন্ধে তারা এখনও নিশ্চিত নন। স্বাস্থ্য বিভাগ পরবর্তীতে নিশ্চিত হয়ে জানাবেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী।

ডেঙ্গুর সিজন এলেই অভিযান হয়, এ বিষয়ে কী নির্দেশনা ছিল- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘পৃথিবীতে মশামুক্ত কোনো দেশ আছে কি না- তা নিশ্চিত করে বলতে পারব না। তবে অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে মশা নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে সবাই হয়তো স্বীকার করবে এই মুহূর্তে মশা অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় অনেক নিয়ন্ত্রণে। আমরা ১২ মাসই যাতে ভেক্টর ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কাজ করি সেই বিষয়ে নির্দেশনা ছিল। ১২ মাসই ডেঙ্গুর ভেক্টর ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কাজ শুরু করব। এ ধরনের কাজ অব্যাহত রাখার নির্দেশনা দিয়েছি।’

তাজুল ইসলাম বলেন, ‘সভায় মেয়ররা তাদের অবস্থান তুলে ধরেছেন। সঙ্গত কারণে সময়ে সময়ে তাদের টাকা-পয়সা দিয়েছি, পরামর্শ দিয়েছি, পরিকল্পনা দিয়েছি- সেজন্য তারা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। একটি বিষয়ে তারা বলেছেন- এগ্রিকালচারের জন্য ব্যবহৃত কীটনাশক আমদানি শুল্কের হারের চেয়ে মশক নিধনের কীটনাশক আমদানি শুল্কের হার অনেক বেশি। আমি লিখিতভাবে তাদের বিষয়টি উপস্থাপন করতে বলেছি। আমরা রাজস্ব বোর্ডকে অনুরোধ করব বিষয়টি যৌক্তিক করার জন্য।’

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে কড়াকড়ি নির্দেশনা দেয়ার তো বিষয় নেই। তবে সিটি করপোরেশন মশা মারবে। কিন্তু আপনার বাসায় যদি আপনি মশা প্রজনন করেন তাহলে সিটি করপোরেশনকে দায়ী করার পূর্বে আপনি নিজেই দায়ী থাকবেন। আপনি তো অন্যান্য নাগরিকের জীবন অতিষ্ঠ করতে পারেন না। মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা মানুষকে সচেতন করছি। সবাইকে সতর্ক করেছি, তাৎক্ষণিক কাউকে শাস্তি দেয়া হচ্ছে না।’

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy