LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

জাপানে আঘাত হেনেছে ৭.৩ মাত্রার ভূমিকম্প, আহত শতাধিক

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক/- জাপানের উত্তর-পূর্ব উপকূলে ৭ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। এর কেন্দ্র ফুকুশিমা প্রিফেকচারের উপকূলে ভূত্বকের ৬০ কিলোমিটার গভীরে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহওয়া সংস্থা।

স্থানীয় সময় শনিবার রাত ১১টা ৮ মিনিটে উৎপত্তি হওয়া এ ভূমিকম্পে অন্তত ১০৪ জন আহত হয়েছেন। এদের অনেকের শরীরের হাড় ভাঙলেও কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

ভূমিকম্পটিতে উপকেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকাগুলোর দেয়ালে ফাঁটল ধরেছে, বহু জানালা ভেঙে পড়েছে এবং ফুকুশিমায় একটি ভূমিধস হয়েছে।

জাপানের আবহাওয়া সংস্থা জানিয়েছে, এ ভূমিকম্পটি ২০১১ সালের ১১ মার্চের ৯.০ মাত্রার আরেকটি ভূমিকম্পের পরাঘাত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

১০ বছর আগের ওই ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর ব্যাপক সুনামিতে জাপানের উত্তরপূর্বাঞ্চল ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছিল এবং ২৫ বছরের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে বিপর্যয়কর পারমাণবিক দুর্ঘটনা ঘটেছিল।

আরও কয়েকদিন ধরে বেশ কয়েকটি পরাঘাত হতে পারে বলে সতর্ক করেছে আবহাওয়া সংস্থাটি।

ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল থেকে কয়েকশত কিলোমিটার দূরে রাজধানী টোকিওর ভবনগুলোও কেঁপে উঠেছিল। ভূমিকম্পের পরপরই উত্তরপূর্বাঞ্চলের লাখ লাখ ভবন বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়ে, তবে রোববার সকালের মধ্যে অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ ফিরে আসে।

বেশ কয়েক হাজার বাড়ি পানিশূন্য হয়ে পড়ে, বিভিন্ন এলাকায় পানিবাহী ট্যাংক লরি পাঠিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করা হয়, পানি সংগ্রহের জন্য স্থানীয় বাসিন্দারা প্লাস্টিকের জগ নিয়ে লাইন ধরেন।

রোববার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিসভার মুখ্য সচিব কাতসুনোবু কাতো জানান, শুক্রবার ওই অঞ্চলে পৌঁছানো ফাইজারের করোনাভাইরাস টিকাগুলোতে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কোনো প্রভাব পড়েনি। চলতি সপ্তাহেই সেখানে টিকাদান কর্মসূচী শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, অন্তত ১০৪ জন আহত হয়েছেন, এদের অনেকের শরীরের হাড় ভাঙলেও কারও মৃত্যুর কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ভূমিকম্পের পর কোনো সুনামি হয়নি। পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোর কার্যক্রমেও কোনো বিঘ্ন ঘটেনি।

ফুকুশিমা দাই-নি বিদ্যুৎকেন্দ্রের পারমাণবিক চুল্লির নিঃশেষিত জ্বালানির একটি পুকুর থেকে ১৬০ মিলিলিটার পানি উপচে পড়লেও এতে বিপদের আশঙ্কা নেই বলে এনএইচকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ভূমিকম্পে রেললাইনের ক্ষতি হওয়ায় জাপানের উত্তরাঞ্চলের অধিকাংশ এলাকায় শিনকানসেন বুলেট ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অন্তত একটি লাইনে ট্রেন চলাচল মঙ্গলবার পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy