LastNews24
Online News Paper In Bangladesh

করোনা ভাইরাসঃ করোনার নয়া রূপ! ডেল্টার চেয়েও বিপজ্জনক ল্যাম্বডা, ছড়িয়েছে ৩০দেশে

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গোটা বিশ্বে Covid-এর প্রভাব শুরু হওয়ার পর মিউটেশনের মাধ্যমে এর রূপ পরিবর্তন হচ্ছে। আলফা, বেটা, গামা, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সারা বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে। এ বার এই ভাইরাসের নতুন Variant-এর নাম Lambda। দক্ষিণ আমেরিকার পেরুতে প্রথম হদিশ মিলেছে এই সার্স-কোভ-২-এর নতুন রূপের। WHO-এর তরফ থেকে জানা গিয়েছে, ভাইরাসের এই নতুন রূপটি এত দ্রুত বদল হচ্ছে যে, তা উদ্বেগ বৃদ্ধির কারণ হয়ে উঠছে। এক জনের থেকে অন্য জনে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার ফলে এই রূপটি দ্রুত নিজের রূপ বদল করছে। ইতিমধ্যেই ৩০টি দেশে ছড়িয়েছে। তবে ভারতে এখনও এই রূপটির হদিশ মেলেনি বলে জানা গিয়েছে।

৩০টি দেশেই ল্যাম্বডা ভ্যারিয়েন্টের Covid রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। মালোয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। এরমধ্যে যুক্তরাজ্যে ৬ জন ল্যাম্বডা ভ্যারিয়েন্ট করোনা রোগীর খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। চিলিতে গত দু’ মাসে আক্রান্তদের মধ্যে ৩২ শতাংশের শরীরে Lambda ভ্যারিয়েন্ট উপসর্গ লক্ষ করা গেছে। আর্জেন্টিনা এবং ইকুয়েডরেও দেখা গেছে এই নতুন Variant। এর পর দক্ষিণ আমেরিকায় পাওয়া গেছে। সেখান থেকে মোট ৩০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই Lambda Variant।

বিশেষজ্ঞদের মতে, Delta Variant-এর চেয়েও আরও ভয়াবহ হবে এই ভ্যারিয়েন্ট। কারও শরীরে এই ভ্যারিয়েন্ট থাকলে তা অন্যদের শরীরে ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বেশি। এদিকে ল্যাম্বডার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভ্যাকসিন কতটা কার্যকরী সে বিষয় নিয়ে এখনও গবেষণা চলছে।

সম্প্রতি পেরুর ৮১ শতাংশ Covid রোগীদের দেহে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের এই Lambda Variant-এর সংক্রমণ ঘটতে দেখা গিয়েছে। ইংল্যান্ডের জনস্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত সে দেশে ৬ জন Covid রোগীর ক্ষেত্রে ভাইরাসের এই রূপটিকেই সংক্রমণের মূল কারণ হয়ে উঠেছে। বিশেষজ্ঞরা উদ্বিগ্ন কারণ, নতুন রূপের এই স্পাইক প্রোটিন একের পর এক মিউটেশন আরও বেশি সংক্রামক হয়ে উঠছে। এই মিউটেশনে মানবদেহের অ্যান্টিবডিগুলিকে ধোঁকা দেওয়ার কাজটা সহজতর হচ্ছে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের ল্যাম্বডা রূপের।

কতটা বিপজ্জনক এই প্রজাতি (lambda)?
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, করোনার এই নতুন স্ট্রেন অত্যন্ত বিপজ্জনক। কারও শরীরে এই নতুন স্ট্রেন থাকলে, অন্যদের শরীরে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা বেশি। তাছাড়া অ্যান্টিবডির তুলনায় করোনাভাইরাসকে বেশি শক্তিশালী করে তুলছে এই নতুন স্ট্রেন। তবে এখনও ‘ল্যাম্বডা’-র বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলার সময় আসেনি। করোনার এই নতুন ধরন নিয়ে গবেষণা চলছে। সেই গবেষণা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এলে তবেই এ বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলা যাবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy